Discipline and abuse policy – শৃঙ্খলা এবং গালাগালী নীতিমালা

Discipline and abuse policy – শৃঙ্খলা এবং গালাগালী নীতিমালা

DISCIPLINE AND ABUSIVE POLICY শৃঙ্খলা এবং গালাগালী নীতিমালা

গোল্ডস্টার গার্মেন্টস লি: কর্তৃপক্ষ মনে করে শ্রমিকদের এবং কোম্পানীর শৃঙ্খলার জন্য একটি সুস্পষ্ট নীতিমালা থাকা প্রয়োজন । এতে করে সকলের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ন মনোভাব সৃষ্টি হবে এবং উৎপাদন বৃদ্ধির সাথে সাথে উৎপাদিত পন্যের গুনগত মানও বৃদ্ধি পাবে। শ্রমিকগন সুন্দর এবং সুশৃঙ্খল পরিবেশে কাজ করতে পারবে যার ফলে কোম্পানীর সুনাম বৃদ্ধি পাবে।

 নীতিমালা:

যে সকল কাজ করা যাবেনা:

১.    কোন শ্রমিককে শারিরীকভাবে নির্যাতন করা যাবেনা।

২.    কোন শ্রমিককে কোন রকম যৌন হয়রানী করা যাবেনা।

৩.   যে কোন কারনেই হোক কোন শ্রমিককে খারাপ ভাষায় গালিগালাজ করা যাবেনা।

৪.    শ্রমিকদের সাথে বা ফ্লোরে কোন রকম চিৎকার বা চেচামেচী করা যাবেনা।

৫.    শ্রমিকদের সমস্যা শুনে আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করে কাজ করাতে হবে।

ঘটনা ঘটলে করনীয় বিষয়:

১.    যদি কেউ কোন শ্রমিককে শারিরীকভাবে নির্যাতন করে তাহলে উক্ত ব্যাক্তির বিরুদ্ধে শ্রম আইন অনুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। বিষয়টি অসদাচারন প্রমানিত হলে এমনকি চাকুরী হতেও বহিস্কার করা হতে পারে।

২.    কোন শ্রমিককে খারাপ ভাষায় গালাগালি করলে সেটা অভিযোগ আকারে লিপিবদ্ধ করার পর সত্যতা যাচাই করে অপরাধীর বিরুদ্ধে শ্রম আইন অনুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

৩.   কোন কর্মকর্তা অযথা শ্রমিকদের সাথে ধমক চিৎকার চেচামেচি করলে তার বিরুদ্ধে লিখিত নোটিশ প্রদানের মাধ্যমে সতর্ক করে দেওয়া হবে যাতে ভবিষ্যতে এমন ঘটনা না ঘটে।

এছাড়া প্রত্যেক ফ্লোরে নোটিশ বোর্ডে লিখিত আকারে অভিযোগ পদ্ধতি দেওয়া আছে । যদি কোন শ্রমিকের সাথে উল্লেখিত যে কোন আচরন করা হয় তাহলে উক্ত শ্রমিক লিখিত অথবা মৌখিক ভাবে ফ্যাক্টরীর কমপ্লায়েন্স বিভাগ অথবা ওয়েলফেয়ার অফিসারকে জানাতে পারবে।এছাড়া প্রত্যেক টয়লেটের সামনে অভিযোগ বাক্স আছে সেখানেও নাম না প্রকাশ করে গোপনে লিখিত অভিযোগ প্রদান করতে পারে।সবশেষে সমাধান যদি সঠিক মনে না হয় তা হলে পরবর্তীতে ফ্যাক্টরীর ম্যানেজার এমনকি পরিচালককে  জানাতে পারবে।

সঠিক সমাধান নাম পদবী সেকশন উল্লেখপূর্বক অভিযোগ রেজিষ্টারে লিপিবদ্ধ করা হবে।

Share This Post

Related Post

Leave a Reply