Standard Operating Procedure – ষ্টান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর

Standard Operating Procedure – ষ্টান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর

০১।ভুমিকাঃ

গোল্ড স্টার গার্মেন্টস লি: দেশের একটি অন্যতম বৃহৎ পোষাক প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান । এই প্রতিষ্ঠানের খ্যাতি আন্তর্জাতিক ভাবেও স্বীকৃত । গোল্ড স্টার গার্মেন্টস লি: এর বিভিন্ন ফ্যাক্টরীতে বিশাল সংখ্যক পুরুষ ও মহিলা শ্রমিক কর্মরত রয়েছেন । কারখানায় প্রবেশের পর থেকে প্রস্থান পর্যন্ত একজন শ্রমিককে স্ব-স্ব দায়িত্বে দক্ষতা প্রদর্শনসহ বিভিন্ন বিষয়ে সচেতন থাকতে হয় ।প্রতিষ্ঠান এর সকল স্তরের শ্রমিকগনের করনীয় নির্ধারন ও সচেতনতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যেই এই  Standard Operating Procedure (SOP) – ষ্টান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এস, ও, পি) প্রণয়ন করা হয়েছে ।

উদ্দেশ্যঃ

০২।  গোল্ড স্টার গার্মেন্টস লি: এর জন্য একটি সময়োপযোগী ষ্টান্ডিং অপারেটিং প্রসিজিউর (এস,ও,পি) প্রণয়ন করা সকলের জন্য করনীয় ।

০৩। ফ্যাক্টরীর সকল স্তরের শ্রমিকগনের জন্য নিম্নোক্ত নীতিমালা অবশ্যই অনুকরনীয় বলে বিবেচ্য হবে ঃ

ক) পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন হয়ে পরিপাটি পোষাক পরিধান করে ফ্যাক্টরীতে প্রবেশ করা ।

খ) ফ্যাক্টরীতে প্রবেশের পুর্বে জুতা /স্যান্ডেল খুলে নেয়া এবং ফ্লোরের যথাস্থানে রাখা । টিফিন বক্স নির্দিষ্ট স্থানে রাখা ।

গ) ফ্যাক্টরীতে প্রবেশের সময় হাজিরা কার্ড টাইমকিপারের নিকট জমা দেয়া এবং ফ্যাক্টরী ত্যাগের পুর্বে টাইম কার্ড সংগ্রহ করে সেখানে সঠিকভাবে সময় লিপিবদ্ধ আছে কিনা তা চেক করে স্বাক্ষর দেয়া ।

ঘ) কাজের সময় অপ্রয়োজনীয় কথাবার্তা বা খোশগল্প না করা ।

ঙ) টয়লেট ব্যবহারের পুর্বে স্যান্ডেল পরিধান করা ।

চ) টয়লেট ব্যবহারের পরে ফ্লাস করা ।

ছ) টয়লেট বা ডাইনিং এ পানির অপচয় না করা ।

জ) কোন প্রকার টুকরা ছোট খাট আইটেম নিয়ে টয়লেটে প্রবেশ না করা এবং টয়লেটের ভিতরে কোন প্রকারের অবাঞ্চিত বস্তু না ফেলা ।

ঝ) কোন প্রকার চর্মরোগে আক্রান্ত হলে কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা এবং রোগ না সারা পর্যন্ত কাজে বিরত থাকা ।

ঞ) থু-থু ময়লা আবর্জনা নির্দিষ্ট স্থানে ফেলা ।

ট) খাবারের পুর্বে ও পরে ভাল করে হাত মুখ  পরিষ্কার করা ।

ঠ) বেসিনে ভাত বা তরকারী না ফেলা ।

ড) পানি পানের জন্য নিজের নির্দিষ্ট গ্লাস ব্যবহার করা ।

ঢ) ধুমপান বা নেশা জাতীয় কোন বস্তু গ্রহন থেকে বিরত থাকা ।

ণ) জানালা দিয়ে বাইরে কোন কিছু না ফেলা ।

ত) অপ্রয়োজনীয় চলা-ফেরা ও কথাবার্তা থেকে বিরত থাকা ।

থ) নামাজ ও লাঞ্চ বিরতি এবং কাজের শেষে নির্দিষ্ট কর্মস্থান ত্যাগের পুর্বে সকল আইটেম যথাযথ ভাবে রাখা ।

দ) অকারনে এবং অনুমতি ছাড়া অন্য কোন সেকশনে বা ফ্লোরে প্রবেশ না করা ।

সুইং সেকশনঃ

০৪। সুইং সেকশনে কর্মরত শ্রমিকগন নিম্নে বর্ণিত নীতিমালা অনুসরন করবে :

ক) কাজের সময় নিজের জন্য নির্দিষ্ট মেশিন/টেবিলে স্থান গ্রহন করা ।

খ) মেশিন বা কাজের স্থানের পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করা ।

গ) কাজের স্থানে রক্ষিত সকল সামগ্রী গুছিয়ে রাখা ।

ঘ) কাজের শুরুতে মেশিনের তেল যথাযথ এবং মানসম্মত ভাবে আছে কিনা তা চেক করা । সমস্যা থাকলে সুপারভাইজারকে জানানো ।

ঙ) মেশিনের সাথে বৈদ্যুতিক তারের অতিরিক্ত অংশ টেপ দিয়ে রাখা যাতে তার ঝুলে না থাকে ।

চ) মেশিনের সেফটি ডিভাইস নিডেল গার্ড সেফটি গ্লাস কভার, মোটর বেল্ট কভার ইত্যাদি  যথাযথ ভাবে সংযুক্ত আছে কিনা তা চেক করা ।

ছ) নিডেল ভেঙ্গে গেলে সকল ভাঙ্গা অংশ সংগ্রহ করে নিডেল ম্যানের কাছে জমা করে নতুন নিডেল ইস্যু করা ।

জ) ভাঙ্গা নিডেলের কোন অংশ খুজে পাওয়া না গেলে গার্মেন্টস ভাল ভাবে চেক করবে । প্রয়োজনে মেটাল ডিটেক্টর ব্যবহার করতে হবে।

ঝ) ফিনিশিং আয়রন প্রেসিং শেষে নির্দিষ্ট র‌্যাকে রাখবে । কখনোইতা কাপড় বা টেবিলের উপর ফেলে রাখবেনা ।এতে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হতে পারে।

ঞ) ফ্লোরে অবস্থান কালীন সময় মুখোশ এবং স্কার্ফ (মহিলাদের ক্ষেত্রে) ব্যবহার করা ।মেশিনের সাথে প্রয়োজনীয় কার্ড সমুহ আছে কিনা তা চেক করা ।

ট) ওভারলক মেশিন এর সাথে সংযুক্ত ব্যাগ নিয়মিত বিরতিতে পরিস্কার করা ।

ঠ) কাজের শুরুতে মেশিনে কোন প্রকার কারিগরী এুটি আছে কিনা তা চেক করা । টেনশন ঠিক করা ইত্যাদি ।

ড) কাজের সময় যাতে গার্মেন্টস বা অন্য কোন এ্যাকসেসরিজ মেঝেতে না পড়ে সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখা ।

ঢ) কাজের সময় কোথাও কোন সমস্যা হলে দ্রুত সুপারভাইজারকে অবহিত করা।

ণ) কোথাও কোন ন্যাকেট তার থাকলে ইলেকট্রিশিয়ানকে জানানো।

ত) যে সমস্ত মেশিন প্যান্ডেলের সাথে চেইন দ্বারা সংযুক্ত থাকে,সেই সমস্ত মেশিনে চেইনের পরিবর্তে করে সেই সমস্ত মেশিনে কাজ করা যাবে না ।

ধ)  নাটবোল্ট নাই ঝালাই খুলে গেছে কিনা বা অন্য কোন কারন বশতঃ মেশিনের টেবিল ষ্ট্যান্ড নাড়াচাড়া করে সেই সমস্ত মেশিনে কাজ করা যাবে না ।

ন) প্যাডেল কিংবা ষ্ট্যান্ডের মধ্যে অপারেটর এর শরীর ক্ষত হয়ে যাবে এমন কোন ধারালো অবস্থা থাকবেনা ।

প) মেশিন চালানোর সময় মেশিন কাপড়ে কিংবা অস্বাভাবিক কোন শব্দ হলে মেশিন চালানো যাবে না ।

ফ) মেশিন চলাকালীন সময়ে কারো সাথে কথা বলা যাবে না ।

ব) অসুস্থ্য শরীরে কিংবা তন্দ্রা বা ঝিমুনী আসলে মেশিন চালানো যাবে না ।

ভ) মেশিন চালানোর সময় শাড়ি,ওড়না, সালোয়ার.কামিজ যাতে মেশিনের ঘুর্নায়মান অংশের সাথে জরিয়ে না যা সেদিকে সর্বদা লক্ষ্য রাখতে হবে ।

ম) কাজ করার সময় চুল খোপা বা বেনী বেধে কাজ করত হবে । চুল খোলা অবস্থায় কাজ করা যাবে না

য) বাটন হোল, বাটন ষ্টীচ, ওভার লক ,বারটেক মেশিনে সেফটি গ্লাস থাকতে হবে অথবা গগলস ব্যবহার করতে হবে ।

র) প্রয়োজনীয় মেশিন নিডেল গার্ড ব্যতীত মেশিন চালানো যাবেনা  ।

ল)মেঝেতে ষ্টান্ডে সমান ভাবে না বসিয়ে মেশিন নড়াচাড়া করে এমন অবস্থায় মেশিন চালানো যাবে না । 

ফিনিশিং সেকশনঃ

০৫। নিম্নোক্ত নীতিমালা মেনে চলবে ।

ক) মুখোশ ব্যবহার করা ।

খ) স্পট রিমুভার মেশিন অপারেটরের কাজের সময় গ্যাস মাস্ক ও গ্লাভস ব্যবহার করা ।

গ) দাড়িয়ে কাজ করার ক্ষেত্রে ফ্লোর ম্যাট ব্যবহার করা ।

ঘ) সিজার, কাটার, সতর্ক ভাবে ব্যবহার করা ।

ঙ) প্রতিদিন কাজের পুর্বে এই শাখায় ব্যবহারিত সকল মেশিন সমুহ যথাযথ ভাবে চেক করা ।

চ) মেশিনের সেফটি ডিভাইস যথাযথ ভাবে সংযুক্ত আছে কিনা তা চেক করা ।

ছ) প্রয়োজনে সেফটি গগলস ব্যবহার করা ।

জ) অব্যবহৃত অবস্থায় আয়রন ্িনর্দিষ্ট র‌্যাকে রাখা ।

 

কাটিং সেকশনঃ

৬। নিম্নোক্ত নীতিমালা মেনে চলবে ।

ক) মুখোশ ব্যবহার করা ।

খ)কাপড় কাটার সময় কাটিং গ্লোভস ব্যবহার করা ।

 

উপসংহার ঃ 

৭। ফ্যাক্টরীতে কর্মরত সকল শ্রমিকগনের জন্য উপরোক্ত নীতিমালা সম্বন্ধে জানা ও যথাযথ ভাবে পালন করা বাধ্যতামুলক । সামান্য অসতর্কতা বা ভুলের কারনে বড় ধরনের দুর্ঘটনার সৃষ্টি হতে পারে যা থেকে জান ও মালের প্রভূত ক্ষতি সাধন হতে পারে  ।

Share This Post

Related Post

Leave a Reply